1. admin@dainikfatikchhari.com : ForkanMahmud :
ওজন বেড়েছে, এখন কি হবে-তামান্না চৌধুরী - দৈনিক ফটিকছড়ি
রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ১১:১৫ অপরাহ্ন

ওজন বেড়েছে, এখন কি হবে-তামান্না চৌধুরী

এডিটর-দৈনিক ফটিকছড়ি
  • আপডেট টাইম বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০২০
  • ৬৫ বার

ঠিক তাই, ওজন বাড়ার কারনে কারো কারো দুনিয়ার সব শেষ হয়ে যায়। যা মোটেও কাম্য নয়। এটা সত্যি যে সুস্থ থাকার জন্য কাম্য ওজন বজায় রাখা অনেক জরুরি। ১৪ বছরের আনিতা ( ছদ্ম নাম) কে দেখেছি চোখের সামনে প্রায় পাগলের মত হয়ে যেতে। স্কুলে প্রথম হওয়া মেয়ে, কে যেন ওকে বলেছিল ” তুই তো মোটা, হাতি”। এরপর সেই মেধাবী মেয়েটি ( বয়স ১৪) সব রকম কার্বোহাইড্রেট ধীরেধীরে ছেড়ে দিতে থাকে। এক সময় তাতেও ও শান্তি পায়না, লুকিয়ে লুকিয়ে কিছু খেলেই তা গলায় আংগুল দিয়ে বমি করে ফেলত। আমার কাছে মেয়েটির মা ও ছোট খালা যখন নিয়ে আসে , তখন অনেক দেরি কারন আনিতার তখন ছিলো severe anorexia. depression… ওর মানুষিক অবস্থা তখন এমন ছিলনা যে আমি ওকে কিছু বোঝাবো। ওর মায়ের মুখটা, কান্না চোখ আমি আজও ভুলিনি।

এ ধরনের ঘটনা এখন নতুন কিছু নয়। আপনি কোন দাওয়াত এ যান, দেখবেন আপনার পোশাক, সাজ, চুল যতই সুন্দর হোক, আপনাকে কেমন আছ? এই প্রশ্নটাও কেউ জিজ্ঞেস করার আগে বলবে,
” আরে…. তুমি এতো মোটা হইছো?” অথচ মোটা মানুষ নানা কারনে হতে পারে। কারও শারিরীক আকার নিয়ে কথা বলা এটা কি কোন ভদ্রতা? তুমি মোটা, তুমি শুকনা এগুলো আলোচনা নয়, এগুলো কারো ভালো চাওয়া নয়, বরং একধরনের বাজে সমালোচনা। অভদ্র লোকরা যেখানে সেখানে মানুষের শারীরিক কাঠামো নিয়ে কথা বলে। এক্ষেত্রে পরিবারের অভিভাবকদের জন্য বিষয়টি ভিন্ন।

একবার ভাবুন, হয়তো আপনি মোটা, কিন্তু আল্লাহ্‌ হয়ত আপনার নাক, চোখ, কান, হাত, পা, মাথা সব ঠিক মতো দিয়েছন। আবার আপনি হয়তো মোটা, কিন্তু আপনার চুল গুলো হয়তো অনেক সুন্দর, যা অনেকেরই নেই। আবার আপনি হয়ত মোটা কিন্তু আপনার যা মেধা, তা আর কারো নেই। এমন অনেক কিছু বলা যায়। আসলে আমি বলি, মোটা হলে কখনও বিচলিত হবেন না। আল্লাহর উপর ভরসা রাখুন। বাবা মায়ের কথা শুনুন। সঠিক পদ্ধতিতে ওজন কমানোর চেষ্টা করুন। আপনি যদি দিকবেদিক হয়ে ওজন কমানোর চেষ্টাতে মেতে উঠেন, তাহলে অনেকেই তার সুযোগ নিবে। হাজার হাজার টাকা তারা কামিয়ে নিবে, আর আপনি কিছুটা ওজন কমে আবার বেড়ে গিয়ে পুনরায় হতাশার পথে হাটবেন।

ওজন বেড়ে গেলে নিজেকে ছোট ভাববেন না, নিজেকে গুটিয়ে ফেলবেন না। মানুসিক ভাবে কষ্টে থাকবেনা। যার তার পরামর্শ নিবেন না, যাকে তাকে জিজ্ঞেস করবেন না ” আচ্ছা কি করব বলতো”? ইন্টারনেট দেখে কোন সিদ্ধান্ত নিবেন না।

বর্তমানে যারা অভিজ্ঞ ডায়টেশিয়ান আছেন তাদের কাছে গিয়ে নিজের অসুবিধার কথা শেয়ার করুন। নিজের বাড়ীতেই কম ক্যালরীর খাবার মজা করে তৈরী করে পরিবারের সবার সাথে উপভোগ করুন। অল্প ওজন কমাতে হলে একটু হেটে, ঠিক মত ঘুমিয়ে, রাতে রুটি খেয়ে, চিনি মিষ্টি বাদ দিয়ে নিজেই চেষ্টা করুন। আর যদি অধিক ওজন কমানোর প্রয়োজন হয় তবে, সেই বিষয়ে একজন অভিজ্ঞ ডায়টেশিয়ানের পরামর্শ নিন। মনের আনন্দে বেচে থাকতে শিখুন। ওজন পৃথিবীর একমাত্র সাবজেক্ট বা অবজেক্টিভ না।

আপনিও শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরি আরো খবর...
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazafatikcha54
//graizoah.com/afu.php?zoneid=3460431